শিরোনামঃ
ফুলবাড়ীতে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন বরিশালের বানারীপাড়ায় ইয়াবাসহ বেল্লাল পুলিশের খাঁচায়।। নাটোর পৌরসভার বিএনপির মেয়র প্রার্থী হলেন বাবুল চৌধুরি বাংলাদেশে থেমে থাকছে না বাল্যবিবাহ, প্রতিনিয়তই হচ্ছে বাল্যবিবাহ, মোঃ শফিকুল ইসলাম (রাকিব) দিনাজপুর প্রতিনিধি দৌলতখান পৌর নির্বাচনে দলীয় মনোয়ন পেতে মাঠ দাপাচ্ছেন মেয়র প্রার্থী খোকন। সাংবাদিক জসিম এর খালুর মৃত্যুতে “মানব কল্যাণ সেবা সংঘ”পরিবারের শোক প্রকাশ কবিতা ”””””””'”””””””””” #_স্বপ্ন_পুরনের_প্রার্থনা মোহাম্মদ ফারুকউদ্দিন ফারভেজ  কাচিয়ার বৈদ্যেরপুলে ইয়াবাসহ এক যুবক আটক। কালীগঞ্জে যুবকদের অক্লান্ত প্রচেষ্ঠায় তাফসীরুল কোরআন মাহফিল রবিবার
শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০২:২৯ অপরাহ্ন
Notice :
ডোমেইন হোস্টিং সহ মাত্র 5 হাজার টাকায় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানান।আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু, Our Bd It তে আপনাকে স্বাগতম। আপনি কি সাংবাদিক? নিজের একটা অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানাতে চান? তাহলে আপনি ঠিক জায়গাতেই এসেছেন।Our Bd It আপনার চাহিদা মোতাবেক অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানিয়ে দিবে। Our Bd It শুধু অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানিয়েই দায়িত্ব শেষ করে ফেলে না, সব সময় আপনার বন্ধুর মত আপনার পাশে থাকবে ইন শা আল্লাহ।আরো বিস্তারিত জানতে Our BD It এর ফেসবুক পেজে মেসেজ দিন।Our BD It এর ফেসবুক পেইজ লিংক https://facebook.com/ourbdit.official

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

সিসি ক্যামেরার আওতাবিহীন বেনাপোল বন্দর

 আঃজলিল যশোরঃ / ৫১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০২০
123167589 363986224685735 9139198729867011941 n

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

 স্থলপথে আমদানি, রফতানি বাণিজ্য ও রাজস্ব আয়ের দিক দিয়ে বেনাপোল বন্দর সব চেয়ে বেশি গুরুত্ব বহন করলেও কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় বন্দর প্রতিষ্ঠার ৪৮ বছরেও সিসি ক্যামেরার আওতায় আসেনি বন্দরটি।
ফলে বন্দরে আমদানি পণ্য চুরি, দুর্বৃত্তদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে বার বার ককটেল বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডসহ নানান অপ্রতিকর ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় এপথে আমদানিতে নিরউৎসাহিত হচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।
ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা বলছেন, সিসি ক্যামেরা খুব জরুরি হয়ে দাড়ালেও বন্দর কর্তৃপক্ষের গরিমশিতে তা আজও থমকে রয়েছে। আর বন্দর কর্তৃপক্ষ বলছেন, খুব দ্রুত সিসি ক্যামেরা স্থাপন হবে। এতে বন্দরের নিরাপত্তা ও জবাবদিহিতা বাড়বে। জানা যায়, ১৯৭২ সাল থেকে বেনাপোল বন্দরের সাথে ভারতের আমদানি, রফতানি বাণিজ্যক যাত্রা শুরু।
যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হওয়াতে দুই দেশের ব্যবসায়ীদের এপথে প্রথম থেকে বাণিজ্যে আগ্রহ বেশি। দেশে স্থলপথে যে আমদানি,রফতানি বাণিজ্য হয় তার ৬০ শতাংশ হয়ে থাকে শুধু বেনাপোল বন্দর দিয়ে।
প্রতিবছর এ বন্দর দিয়ে প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকার আমদানি ও ৮ হাজার কোটি টাকার রফতানি বাণিজ্য হয়ে থাকে। যা থেকে সরকারের রাজস্ব আসে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা। কিন্তু আমদানি পণ্য ও কর্মকর্তা, কর্মীচারীদের নিরাপত্তায় সিসি ক্যামেরা গুরুত্বপূর্ণ হলেও আজ পর্যন্ত এবন্দরটিতে স্থাপন হয়নি।
নানা অজুহাতে পার করছে ৪৮ বছর। ফলে বন্দর অভ্যন্তরে শুল্কফাঁকি দিয়ে আমদানি পণ্য পাচার, নাশকতামূলক বন্দরের পণ্যগারে অগ্নিকাণ্ড, ককটেল বিস্ফোরণ এমন কি নিরাপত্তা কর্মী হত্যার মতও ঘটনা ঘটছে।
তবে সিসি ক্যামেরা না থাকায় এসব ঘটনার রহস্য উৎঘাটন ও অভিযুক্তরা সব সময় থাকছে ধরা ছোওয়ার বাইরে।
এতে ব্যবসায়ীরা লোকসান ও আতঙ্কের মধ্যে পড়ে এবন্দর দিয়ে পণ্য আমদানিতে নিরুৎসাহিত হচ্ছেন। বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান জানান, বন্দরে বারবার আনুন আর ককটেল বিষেস্ফারণের ঘটনা ঘটলে ব্যবসায়ীরা কিভাবে এ বন্দর দিয়ে আমদানি, রফতানি করবেন? আশ্বাসে থমকে রয়েছে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ।
রফতানি কারক তৌহিদুজ্জামান জানান, ডিজিটাল দেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দরে সিসি ক্যামেরা থাকবেনা এটা হয়না। সিসি ক্যামেরা যেমন আমদানি পণ্যের নিরাপত্তা বাড়ায় তেমনি সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারীদেরও নিরাপত্তা দেয়। শার্শা উপজেলা দুর্নীতি দমন প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান লিটু জানান, বর্তমান যুগে সব জায়গায় সিসি ক্যামেরার ব্যবহার।
কিন্তু যে বন্দরে ব্যবসায়ীদের হাজার হাজার কোটি টাকার আমদানি, রফতানি পণ্য রয়েছে সে বন্দরে সিসি ক্যামেরা লাগাতে বন্দরের কেন এত গরিমশি বুঝতে পারছি না। বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, সিসি ক্যামেরা এখন কোন প্রসাধনী জিনিস না। বন্দর কর্তৃপক্ষ বার বার প্রতিশ্রুতি দিয়েও এখন পর্যন্ত এবন্দরে সিসি ক্যামেরা লাগেনি।
ফলে পণ্য চুরি, অগ্নিকাণ্ডসহ নানান ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। ভারত-বাংলাদেশ ল্যান্ডপোর্ট ইমপোর্ট-এক্সপোর্ট কমিটির চেয়ারমান মতিয়ার রহমান জানান, নিরাপত্তার জন্য সিসি ক্যামেরা গুরুত্বপূর্ণ হলেও তা লাগাতে বন্দর কর্তৃপক্ষের গরিমশি বুঝিনা। এটা সরকারকে দেখতে হবে। বেনাপোল বন্দরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক আব্দুল জলিল জানান, খুব দ্রুত বন্দরে সিসি ক্যামেরা বসবে। এতে বন্দরের যেমন নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে তেমনি কাজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বাড়বে।
উল্লেখ্য, গত এক যুগে বেনাপোল বন্দরে বড় ধরনের ৭টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে এক দেড় হাজার কোটি টাকার পণ্য পুড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ব্যবসায়ীরা। এছাড়া বন্দর পণ্যগার থেকে ১০টি ককটেল উদ্ধার ও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তবে বন্দরে সিসি ক্যামেরা না থাকায় অগ্নিকাণ্ডের কোন রহস্য বা দুর্বৃত্তরা শনাক্ত হয়নি।

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

received 2820068614934428

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।