শিরোনামঃ
নোবিপ্রবিতে ‘তর্কযুদ্ধ সিজন-৪ এর ভাটির বীর, বারোভূঁইয়ানামা’ শুরু কচুয়ায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে ২০২০ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত স্বরূপকাঠিতে কমিউনিটি পুলিশিং-ডে উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা।। কালীগঙ্গা নদীতে ফেরী সার্ভিস অনুমোদন হওয়ায় স্বরূপকাঠির গুয়ারোখায় দোয়া মাহফিল।। মুজিববর্ষের মূলমন্ত্র, কমিউনিটি পুলিশিং সর্বত্র”এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ভোলায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ উদযাপন। বরিশালের বাবুগঞ্জে মা ইলিশ নিধনের অপরাধে ৮ জনকে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।। ৯৯৯ তে কল বরিশালে চিকিৎসার মেমো চাওয়ায় রোগীর স্বজনকে মারলো সাউথ বেঙ্গল ক্লিনিক মালিক। অসুস্থ অবস্থায় জনগনের টানে মেডিকেল থেকে ফিরলেন ইউপি চেয়ারম্যান! বরিশালের বানারীপাড়ায় শতভাগ মাস্ক পড়া নিশ্চিত ও জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরন করেন জিয়াউল হক মিন্টু।। ভোলার বোরহানউদ্দিনে মহানবী মুহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে ফ্রান্সে ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শণ করার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত
শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৪ অপরাহ্ন
Notice :
ডোমেইন হোস্টিং সহ মাত্র 5 হাজার টাকায় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানান।আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু, Our Bd It তে আপনাকে স্বাগতম। আপনি কি সাংবাদিক? নিজের একটা অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানাতে চান? তাহলে আপনি ঠিক জায়গাতেই এসেছেন।Our Bd It আপনার চাহিদা মোতাবেক অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানিয়ে দিবে। Our Bd It শুধু অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানিয়েই দায়িত্ব শেষ করে ফেলে না, সব সময় আপনার বন্ধুর মত আপনার পাশে থাকবে ইন শা আল্লাহ।আরো বিস্তারিত জানতে Our BD It এর ফেসবুক পেজে মেসেজ দিন।Our BD It এর ফেসবুক পেইজ লিংক https://facebook.com/ourbdit.official

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

বরগুনার আলোচিত শাহনেওয়াজ রিফাত হত্যা মামলায় মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি

রিপোটারের নাম / ৮২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
20200930 173512

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

বরগুনার আলোচিত শাহনেওয়াজ রিফাত হত্যা মামলায় মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি

পিন্টু স্যার

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আসাদুজ্জামানের আদালতে এ রায় ঘোষণা করা হয়।

ফাঁসির আদেশ পেয়েছেন রিফাত ফরাজি, আল কাইউম ওরফে রাব্বি আকন, মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয়, মো. হাসান, আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি।

খালাস পেয়েছেন মো. মুসা, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, মো. সাগর এবং কামরুল ইসলাম সাইমুন।

আদালত প্রাঙ্গণে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, শুধু বরগুনা নয় সারা বাংলাদেশেই আলোচিত এই মামলা। এই রায়ে আমরা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছি। ২৬ জুন যে হত্যাকাণ্ড হয়েছে তার শুরু থেকেই আমরা বলেছি এই হত্যাকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড ছিল আয়েশা সিদ্দিক মিন্নি।

এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সরাসরি ছয়জন সম্পৃক্ত ছিল। এবং ছয়জনকেই আদালত মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। চারজনকে যে খালাস দিয়েছে এই নিয়ে আমাদের কোন বক্তব্য নেই। এই মামলার ৭৬ সাক্ষীর সকলেই মিন্নিকে দোষী করেছে।

তারা বলেছে মিন্নির ষড়যন্ত্রের কারণেই এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে। মিন্নি নয়নের সঙ্গে বিয়ে গোপন করে রিফাতকে বিয়ে করেছিল। একজন নারী একটি বিবাহ বলবৎ থাকা অবস্থায় কোন পুরুষকে বিবাহ করতে পারে না। দুই পুরুষ যখন একত্রে ছিল তখন সে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছিল।

আদালতে মিন্নির দোষ প্রমাণিত হবার বিষয়ে তিনি আরো বলেন, আদালতই অবজারভেশন দিয়েছে, এই হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী ছিল মিন্নি। মিন্নি না থাকলে এই হত্যাকাণ্ড হতো না। আদালতের অবজারভেশনই এটা ছিল যে মিন্নির কারণেই এই হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়েছে।

এছাড়া দণ্ড প্রদানের পরপরই আদালত মিন্নিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বলে জানান এই আইনজীবী।

এর আগে সকালে ‌ক‌ঠোর নিরাপত্তার মধ্য দি‌য়ে বেলা ১১টা ৪০ মি‌নি‌টে কারাগার ‌থে‌কে আসামি‌দের আদাল‌তে আনা হয়। দুপুর ১টা ২০ মিনিটে বরগুনা জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক এ রায় ঘোষণা শুরু করেন। এ সময় জামিনে থাকা আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি ও কারাগারে থাকা ৮ আসামি উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ১৬ সেপ্টেম্বর এ মামলার দুই পক্ষের যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আসাদুজ্জামান রায়ের জন্য বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দিন ধার্য করেন।

২০১৯ সালের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে মানুষের উপস্থিতিতে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে (২৫) কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ঘটনার পরদিন ১২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও পাঁচ-ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ।

গত ১ সেপ্টেম্বর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় রিফাতের স্ত্রী মিন্নিসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দুই ভাগে বিভক্ত অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। একই সঙ্গে রিফাত হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

নৃশংসভাবে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার বহুল আলোচিত এ মামলায় পুলিশ যে ২৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছিল, তাদের মধ্যে ১০ জনের বিচার চলে জজ আদালতে। বাকি ১৪ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের বিচার চলছে বরগুনার শিশু আদালতে আলাদাভাবে।

গত ১ জানুয়ারি রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালত। অন্যদিকে গত ৮ জানুয়ারি রিফাত হত্যা মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনার শিশু আদালত।

এ মামলার চার্জশিটভুক্ত প্রাপ্তবয়স্ক আসামি মো. মুসা এখনও পলাতক রয়েছেন।

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।