শিরোনামঃ
লালমোহন সরকারি গুচ্ছগ্রামের চোরাই টিন উদ্ধার-গ্রেপ্তার ১ প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, ছাত্রলীগ নেতা জেলহাজতে স্বচ্ছতা গ্রুপের পক্ষ থেকে বেকার যুবককে চটপটি বিক্রির ভ্যানগাড়ি প্রদান। মাধবপুর উপজেলা জিয়া সাইবার ফোর্স এর কমিটি অনুমোদিত। ফুলবাড়ীতে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন বরিশালের বানারীপাড়ায় ইয়াবাসহ বেল্লাল পুলিশের খাঁচায়।। নাটোর পৌরসভার বিএনপির মেয়র প্রার্থী হলেন বাবুল চৌধুরি বাংলাদেশে থেমে থাকছে না বাল্যবিবাহ, প্রতিনিয়তই হচ্ছে বাল্যবিবাহ, মোঃ শফিকুল ইসলাম (রাকিব) দিনাজপুর প্রতিনিধি দৌলতখান পৌর নির্বাচনে দলীয় মনোয়ন পেতে মাঠ দাপাচ্ছেন মেয়র প্রার্থী খোকন।
শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১১:০৯ অপরাহ্ন
Notice :
ডোমেইন হোস্টিং সহ মাত্র 5 হাজার টাকায় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানান।আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু, Our Bd It তে আপনাকে স্বাগতম। আপনি কি সাংবাদিক? নিজের একটা অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানাতে চান? তাহলে আপনি ঠিক জায়গাতেই এসেছেন।Our Bd It আপনার চাহিদা মোতাবেক অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানিয়ে দিবে। Our Bd It শুধু অনলাইন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইট বানিয়েই দায়িত্ব শেষ করে ফেলে না, সব সময় আপনার বন্ধুর মত আপনার পাশে থাকবে ইন শা আল্লাহ।আরো বিস্তারিত জানতে Our BD It এর ফেসবুক পেজে মেসেজ দিন।Our BD It এর ফেসবুক পেইজ লিংক https://facebook.com/ourbdit.official

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

মাদকের ভয়াল করাল গ্রাসে যুব সমাজ, দেশ ও উন্নয়নে আজকে বাধা গ্রস্হের দারপ্রান্তে।

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৫৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০
FB IMG 16032820138236396

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

FB IMG 16032820138236396

আঃজলিল মন্তব্য প্রতিবেদন কলমেঃ–

দেশ উন্নয়নে সবচেয়ে বড় ভূমিকা গ্রহণ করে যুব সমাজ। এরা নিজেদের অর্থ উপার্জনের মাধ্যমকে বড় করে নিজেকে অর্থশালী গড়ে তোলার স্বপ্নে বিভোর নয় বরং সর্বদা খেয়াল থাকে দেশ, দশের উন্নয়ন আর নিজের সততার মধ্য দিয়ে গড়ে তোলা সম্মানের প্রতি।

যুব সমাজ দেশ উন্নয়নে শ্রদ্ধাশীল হয়ে থাকে এবং যতটুকু কাজ করে তা করে ভক্তি সহকারে। তাই যুব সমাজের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে রাষ্ট্র পরিচালনাকারীদের। খেয়াল রাখতে হবে এ যুবকেরা যেন বিপদগামী না হয়।তাদেরকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে, কিছুতেই যেন ষড়যন্ত্রকারীরা তাদের মিশন গুড়িতে দিতে না পারে। রাষ্ট্র যখন এগিয়ে যায় তখন একশ্রেণির দেশদ্রোহী সমাজে লুকিয়ে থাকা দানবেরা নানা কৌশলে একদিকে রাষ্ট্র প্রধানদের সুনামে মুগ্ধ করে আর অন্য দিকে রাষ্ট্র উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করে থাকে।

তবে শুধু যে দেশীয় দানবেরা বাধা সৃষ্টি করবে তা কিন্তু নয়। উন্নয়নের এ আগুন লাগতে পারে প্রতিবেশী রাষ্ট্র গুলোতেও।

আর যখন উন্নয়নে বড় শকুনেরা বাধা হয়ে দাঁড়ায় তখন তারা সর্বপ্রথম টার্গেট করে উন্নয়ন মুখি যুব সমাজের প্রতি। তাদের ধ্যান জ্ঞান থাকে এ যুব সমাজকে নানাপথে বিপদগামী করে তোলা। একেরপর এক, হতে পারে তা নানা কৌশলের নানা পথ। তবে যুবকদেরকে তারা বেশীর ভাগ দুটি জিনিসের মাধ্যমে ধ্বংস করার চেষ্টা করে থাকে ১। নারী ২। মাদক। যেহেতু আমাদের দেশ মুসলিম রাষ্ট্র তাই তারা নারী দিয়ে তেমন একটা সুবিধা করতে পারবে না। তাই তারা অবশ্যই দ্বিতীয় ঢাল মাদককে প্রধান হাতিয়ার হিসেবে নানা ভাবে ব্যবহার করে এবং করবে।

বর্তমান আমাদের দেশের চতুর্দিকে মাদকের ছড়াছড়ি। মাদকের চালান আটক হলেও সিংহভাগ নানা কৌশলে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে ছড়িয়ে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন পাড়া, মহল্লা, গ্রাম ও শহরে। এমনকি স্কুল, কলেজ, ভার্সিটিসহ নানা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের কাছে। এখানেই বুঝা যায় যুব সমাজকে ধুলিসাৎ করতে দানবেরা সজাক।
একজন মাদক সেবি, তার সমাজ ও স্বপ্নঃ
একজন মাদক সেবির মাদক গ্রহণের আগে তার একটি সুন্দর করে সাজানো গোছালো স্বপ্ন ছিল। কিন্তু এখন তা আর নেই। শেষ হয়ে গেছে তার সমস্ত স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে তাকে নিয়ে দেখা তার গোটা পরিবারের সব স্বপ্ন।

একজন মাদক সেবি মাদকের অর্থ জোগান দিতে না পেরে প্রথমে নিজ পরিবারের কাজ থেকে নানা ভাবে টাকা নিতে থাকে। এক সময় সেখান থেকে বন্ধ হয়ে যায় তখন সে নানা কৌশলে আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে নেওয়া শুরু করে। ফাটল ধরে সেখানেও। সম্পর্ক নষ্ট হতে থাকে পরিবার ও স্বজনদের সাথে। এরপর শুরু হয় নিজ ঘরে চুরি। এভাবে একদিন ডাকাতি, ছিনতাই সহ নানা অপকর্ম।

এরা দিনদিন জীবনের ভয় দুরে ঠেলে সমাজের মানুষের কাছে ভয়ানক হয়ে ওঠে। সমাজ এদেরকে ঘৃণা করে, অভিশাপ দেয় এমনকি মৃত্যু কামনা করে। কিন্তু একজন মেধাবী যুবকের মাদক সেবনের দিকে ঠেলে দিয়েছে কে ? এই সমাজ এই সমাজের মানুষ। ভাবতেই পারেন কিন্তু কিভাবে ? একটা যুবক একজন শিক্ষার্থী কখনো মাদক খোঁজ করে না বরং সুন্দর জীবন কিভাবে সাজানো যায় সেটাই খোঁজে।

কিন্তু এই সমাজে নিজেকে ভালো মানুষের কাতারে সাজিয়ে রাখা মুখোশধারী অর্থ পিচাশ নিজেদের অর্থের পাহাড় গুছাতে মাদক নামের সর্বনাশা তুলে দিচ্ছে যাদের হাতে দেশের উন্নয়ন। নিমিষেই শেষ করে দিচ্ছে রাষ্ট্র উন্নয়নের অস্ত্র একটি যুবক একটি দেশ।

অবশেষে ধুঁকে ধুঁকে অন্ধকার জীবনের ইতি ঘটিয়ে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে ছোট্ট ঘরের বাসিন্দা। সুন্দর স্বপ্নের করুন পরিনতি।

তবে পাপ কাউকে ছাড় দেয় না। বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে দেখা গেছে, যারাই মাদক ব্যবসা করে তারাই এমনকি তার পরিবারের লোকজনও এই মাদক সেবনে জড়িত। মাদকের সাথে যেই জড়িত থাকুক না কেন প্রকৃতপক্ষে কেউই সুখী নয়।
তাই আসুন-
মাদককে না বলি মাদক মুক্ত দেশ গড়ি।
আজ থেকে প্রতিজ্ঞা করুন
দেশ হবে মাদক মুক্ত
সমাজ হবে নিরাপদ
যুবকেরা দেশ উন্নয়নে হবে যুক্ত।ক

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।

received 2820068614934428

বিস্তারিত জানতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন।