1. rifatashad@gmail.com : ashad :
  2. juwel312560@gmail.com : asif :
  3. jakirjebon@gmail.com : jakir :
  4. mdjohirulislam32321@gmail.com : johirul :
  5. Mdmosharofh43@gmail.com : mosahid :
  6. mohammadrakib230@gmail.com : News 71 :
  7. xr.riad@gmail.com : Riadul :
২১শে ফেব্রুয়ারীতে সকল ভাষা শহিদ কে বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন- আক্তার চেয়ারম্যান। - News 71
বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৬:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির মানববন্ধন বোরহানউদ্দিনে নিষেধাজ্ঞা অমান্যকরে মেঘনায় মাছধরায় ৭ জনের জেল – জরিমানা লালমনিরহাটে সময়ের আলো পত্রিকার দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার বীমা হোক সবার এই শ্লোগানে ন্যাশনাল লাইফ ইন্সুরেন্স লিমিটেড ২য় তম বীমা দিবস পালিত। মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে অসাধারণ কর্ম দক্ষতার স্বীকৃতিস্বরূপ প্রশংসা সনদ পেলেন জাহিদ। বগুড়া পৌরসভায় শান্তিপূর্ণভাবে চলছে ভোট গ্রহণ !! ক্তরাষ্ট্রের পর উইঘুর মুসলিমদের ওপর চীনা নিপীড়নকে গণহত্যার স্বীকৃতি কানাডার- সান্তাহারে সজবির ডালা পড়ে যাওয়ায় মা-ছেলেকে মারপিটের অভিযোগ বগুড়ায় ট্রাক চাপায় দুই অটোরিকশার যাত্রী নিহত !! উৎসব মুখর পরিবেশে বগুড়া পৌর নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি প্রার্থীর অংশগ্রহণ
বিজ্ঞপ্তিঃ
আপনি কি সাংবাদিক? বাজেটের মাঝে প্রফেশনাল অনলাইন নিউজ পোর্টাল বানাতে চাচ্ছেন? তাহলে Coder Boss হতে পারে আপনার গর্বিত সহযোগী। বাজেটের মাঝেই প্রফেশনাল অনলেইন নিউজ পোর্টাল বানাতে যোগাযোগ করুন Coder Boss এর সাথে। Coder Boss এর ফেসবুক পেইজ লিংকঃ https://facebook.com/CoderBossBD

২১শে ফেব্রুয়ারীতে সকল ভাষা শহিদ কে বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন- আক্তার চেয়ারম্যান।

  • Update Time : শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৮০ Time View

আছিফুর রহমান জুয়েল,ভোলা জেলা প্রতিনিধি।  

আগামীকাল নতুন বছরের একুশে ফেব্রুয়ারীতে সকল ভাষা শহীদ কে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন,লালমোহন উপজেলার কালমা ইউনিয়ন এর বারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান জনাব আলহাজ্ব আক্তার হোসেন মিয়া।

তিনি বলেন, ভাষা শহীদদের আত্মমর্যাদা ও ত্যাগ স্বীকারের কারণেই আজ আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন বাংলাদেশের স্বাধীন বাংলা ভাষা। সালাম,রফিক,বরকত,জব্বার সহ যারা এ ভাষা আন্দোলনে গিয়ে তাদের জীবন উৎসর্গ করে দিয়েছে তাদের প্রতি রইল বিনম্র শ্রদ্ধা।

বাংলা ভাষা আন্দোলন ছিল তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানে সংঘটিত একটি সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক আন্দোলন । ২ সেপ্টেন্বর ১৯৪৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় শিক্ষক ও ছাত্রের উদ্যোগে ‘তমুদ্দুন মজলিস’ গঠনের মাধ্যমে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠার ব্যাপক আন্দোলন শুরু হয় । তমুদ্দুন মজলিসের নেতৃত্বে ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন তরুণ অধ্যাপক আবুল কাশেম । মৌলিক অধিকার রক্ষাকল্পে বাংলা ভাষাকে তৎকালীন পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গণদাবীর বহিঃপ্রকাশ ঘটে। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিতে এ আন্দোলন চূড়ান্ত রূপ ধারণ করলেও বস্তুত এর বীজ বপিত হয়েছিল বহু আগে, অন্যদিকে এর প্রতিক্রিয়া এবং ফলাফল ছিল সুদূরপ্রসারী।

১৯৪৭ সালে দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে ব্রিটিশ ভারত ভাগ হয়ে পাকিস্তানের উদ্ভব হয়। কিন্তু পাকিস্তানের দু’টি অংশ— পূর্ব পাকিস্তান এবং পশ্চিম পাকিস্তানের মধ্যে সাংস্কৃতিক, ভৌগোলিক ও ভাষাগত দিক থেকে অনেক মৌলিক পার্থক্য বিরাজ করছিল। ১৯৪৮ সালে পাকিস্তান সরকার ঘোষণা করে যে, উর্দুই হবে পাকিস্তানের একমাত্র রাষ্ট্রভাষা। এ ঘোষণার প্রেক্ষাপটে পূর্ব পাকিস্তানে অবস্থানকারী বাংলাভাষী সাধারণ জনগণের মধ্যে গভীর ক্ষোভের জন্ম হয় ও বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। পূর্ব পাকিস্তান অংশের বাংলাভাষী মানুষ আকস্মিক ও অন্যায্য এ সিদ্ধান্তকে মেনে নিতে পারেনি এবং মানসিকভাবে মোটেও প্রস্তুত ছিল না। ফলস্বরূপ বাংলাভাষার সমমর্যাদার দাবিতে পূর্ব পাকিস্তানে আন্দোলন দ্রুত দানা বেঁধে ওঠে। আন্দোলন দমনে পুলিশ ১৪৪ ধারা জারি করে ঢাকা শহরে সমাবেশ-মিছিল ইত্যাদি বেআইনী ও নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 News 71
Design & Develop BY Coder Boss