• Uncategorized

    সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির মানববন্ধন

      প্রতিনিধি ৩ মার্চ ২০২১ , ৮:২৭:২৯ প্রিন্ট সংস্করণ

    রিয়াদুল ইসলাম,নোবিপ্রবি প্রতিনিধি:

    আপনি কি সাংবাদিক? বাজেটের মাঝে প্রফেশনাল অনলাইন নিউজ পোর্টাল বানাতে চাচ্ছেন? তাহলে Coder Boss হতে পারে আপনার গর্বিত সহযোগী। বাজেটের মাঝেই প্রফেশনাল অনলাইন নিউজ পোর্টাল বানাতে যোগাযোগ করুন Coder Boss এর সাথে।   Coder Boss এর ফেসবুক পেইজ লিংকঃ https://facebook.com/CoderBossBD

    নোয়াখালীতে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরের হত্যার খুনীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন করেছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (নোবিপ্রবিসাস)।

    বুধবার (৩ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় কালো পতাকা হাতে নিয়ে মুজাক্কির হত্যায় জড়িতদের দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী জানানো হয়।

    নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাইনুদ্দিন পাঠানের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে নোবিপ্রবিসাসের উপদেষ্টা ড.আব্দুল্লাহ আল মামুন, নোবিপ্রবিসাসের সভাপতি আব্দুর রহিম, সহ সভাপতি হিমেল শাহরিয়ার,সদস্য এস ফাহিম,সদস্য মো.রিয়াদুল ইসলাম ও ফাহাদ হোসেন সহ নোবিপ্রবিসাসের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন নোবিপ্রবিসাসের উপদেষ্টা ড.আব্দুল্লাহ আল মামুন ও নোবিপ্রবিসাসের সভাপতি আব্দুর রহিম।

    এসময় তারা কোম্পানিগঞ্জে সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যায় জড়িতদের দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী জানান। এছাড়াও বিভিন্ন সময় সাংবাদিকদের উপর নির্যাতন, মামলার দ্রুত বিচার ও লেখক মুশতাক হত্যার বিচার করে দোষীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার দাবী জানানো হয়।

    উল্লেখ্য, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এবং কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়। এতে আশংকাজনক অবস্থায় মুজাক্কিরকে প্রথমে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে গত শনিবার রাতে তিনি মারা যান। মুজাক্কির অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা বাজারের নোয়াখালী প্রতিনিধি ছিলেন। এ ঘটনায় মুজাক্কিরের বাবার করা মামলাটি পিবিআই তদন্ত করছে। তবে এখনও মুজাক্কির হত্যার ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

    আরও খবর

    Sponsered content